• December 9, 2021

আসামে আবারও শুরু হয়েছে বাঙালি নিধন

 আসামে আবারও শুরু হয়েছে বাঙালি নিধন

অনিন্দ্য সুন্দর মন্ডল

শ্যামলাল বিশ্বাস, অনন্ত বিশ্বাস, অবিনাশ বিশ্বাস, সুবল দাস এবং ধনঞ্জয় নম:শূদ্র; নামগুলো মনে পড়ে? ২০১৮ সালে আসামে সামরিক পোষাক পরা সন্ত্রাসীদের বন্দুকের গুলিতে খুন হওয়া ৫ বাঙালি। তারপর NRC-CAA লক্ষ লক্ষ বাঙালি অন্ধকার ডিটেশন ক্যাম্পে বন্দি। স্বাধীনতার সময় থেকে শুরু হওয়া ‘বঙ্গাল খেদা’র নেলি-শিলাপাথর গণহত্যার আধুনিক রূপ হিসাবে আসামে আবারও শুরু হয়েছে বাঙালি নিধন। আরো এক বাঙালি ব্যক্তিকে নির্মমভাবে গুলি করে হত্যা করলো ভারতীয় পুলিশ। এ সংক্রান্ত একটি ভিডিও ইতি মধ্যেই সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ভাইরাল হয়েছে।
ভাইরাল হওয়া ওই ভিডিওতে দেখা গেছে, বাঙালি বিক্ষোভকারী কৃষকদের উপরে গুলি চালাচ্ছে ভারতীয় পুলিশ। তাদের গুলি ও লাঠির আঘাতে ঘটনাস্থলেই মইনুল হক্ নামের এক কৃষক নিহত হয়েছে। পুলিশের গুলিতে নিহত বাঙালির ওই লাশের উপর এক সাংবাদিককে হামলা করতে দেখা যায়! পুলিশকেও লাঠি দিয়ে লাশের গায়ে আঘাত করতে দেখা যায়! এই নব্য বঙ্গাল খেদা’তে ইন্ধন যোগাচ্ছে ধর্মীয় মৌলবাদী, বাঙালি বিদ্বেষী, রাষ্ট্রের কেন্দ্রীয় সরকার।

বর্বরোচিত ভাবে বাঙালি হত্যার প্রতিবাদে পশ্চিমবঙ্গ রাজ্য প্রতিবাদে উত্তাল হয়ে উঠেছে। জাতীয় বাংলা সম্মেলনসহ বিভিন্ন গণসংগঠনের উদ্যোগে শনিবার প্রতিবাদ মিছিল, বিক্ষোভ ও সমাবেশ করা হয়েছে। একই সঙ্গে বাঙালি বিদ্বেষী হিমন্ত বিশ্বশর্মার আসাম সরকারকে ক্ষমতা থেকে সরে দাঁড়ানোর দাবি জানানো হয়।

বেলা ১২.৩০ নাগাদ ময়দান মেট্রোস্টেশন থেকে এক প্রতিবাদ মিছিল বের করা হয় জাতীয় বাংলা সম্মেলন এর ডাকে। মিছিলে নেতৃত্ব দেন সংগঠনের অন্যতম গুরুত্বপূর্ণ সহযোদ্ধা সিদ্ধব্রত দাস। মিছিল শেষ হয় আসাম ভবনের সামনে গিয়ে। আসাম ভবনের সামনে সিদ্ধব্রত দাসসহ অন্যান্য বিভিন্ন গণসংগঠনের প্রতিনিধি এবং উপস্থিত বিশিষ্ট মানুষেরা বক্তব্য রাখেন।

তাঁরা অবিলম্বে আসামে বাঙালির ওপর অত্যাচার বন্ধের দাবি জানিয়ে আসামের বিজেপি সরকারের পদত্যাগ দাবি করেন। তাঁরা বলেন, আসামে আজ বিজেপি সরকার সাম্প্রদায়িক বিভেদ সৃষ্টি করেছে। নাগরিকপঞ্জির নামে ৪০ লাখ বাঙালিকে রাজ্য থেকে বিতাড়ণের উদ্যোগ নিয়ে ডিটেনশনে পাঠিয়েছে। এটা মানা যায় না। এর বিরুদ্ধে সারা বাংলার মানুষ একজোট হয়েছে। এটা আসামের বাঙালিদের ঐতিহ্য রক্ষার লড়াই। বাঙালি হত্যার পূর্ণাঙ্গ তদন্ত দাবি করে সিদ্ধব্রত দাস বলেন, আসামের বাঙালি বিদ্বেষী মুখ্যমন্ত্রীর এখন পদত্যাগ করা উচিত।

  •  
  •  
  •  
  •  

1 Comments

  • **** অসমীয় পুলিশ

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *