• December 9, 2021

ট্রায়ো

 ট্রায়ো

মীর রাকেশ রৌশান

এই মুহূর্তে বাংলায় প্রকাশিত চলচ্চিত্রের যে গুটি  কয়েক বই বাজারে ঘুরে বেড়াচ্ছে ‘ট্রায়ো’ তাদের মধ্যে একেবারেই ভিন্ন ধরনের। প্রেক্ষাপট এবং আঙ্গিক দুটি ক্ষেত্রেই এ বই দৃষ্টি আকর্ষণ করে। সত্যজিৎ, ঋত্বিক এবং মৃণালের তিনটি করে ছবি নিয়ে আলোচনা করেছেন লেখক। সত্যজিতের শহর ত্রয়ী (প্রতিদ্বন্দ্বী, জনঅরণ্য এবং সীমাবদ্ধ) ঋত্বিক ঘটকের দেশভাগ ত্রয়ী ( মেঘে ঢাকা তারা, কোমল গান্ধার ও সুবর্ণ রেখা) এবং মৃণাল সেনের রাজনৈতিক তিনটি ছবি ক্যালকাটা ট্রিলজি( ইন্টারভিউ, কলকাতা ৭১ এবং পদাতিক) দিয়ে সাজানো ‘ট্রায়ো’ একেবারেই ভিন্ন ঘরানার। সত্যজিতের ছবিতে যেমন লেখক তুলে এনেছেন নবজাগরণ থেকে সত্তর দশকের সামাজিক – রাজনৈতিক প্রেক্ষাপট যেখানে ফাদার ফিগারের অনুপস্থিতি কিভাবে সমাজ সংসারকে মূল্যবোধহীনতার দিকে ঠেলে দেয়। তেমনি দেশভাগ যন্ত্রণার মধ্যে দিয়ে ঋত্বিকের ছবি কালোত্তীর্ণ হচ্ছে আর্কিটাইপাল কনসেপ্টের আঙ্গিকে। আর মানুষ তার আপন অজ্ঞাতেই জীবনের অখন্ড রূপটি চরিতার্থ করছে বহুস্তরিয় পর্যবেক্ষণে, তা এ বই না পড়লে বোঝা যায় না। বিশেষত ‘মেঘে ঢাকা তারা’য় নীতা (I con) ও নীতার মানবিক ইচ্ছার (Surplus) মধ্যে সংঘাতছবিটিকে মহাকাব্যিক স্তরে পৌঁছে দেয়। আর মৃণাল সেনের ক্যালকাটা ট্রিলজি তো যেন মৃণাল সেনের ভাষাতেই আলোচনা করেছেন লেখক। মৃণাল সেনের রাজনৈতিক জীবন ও ভাবনা বার বার যেন দ্বান্দ্বিক অবস্থান নিয়েছে। কখনও কখনও পরিচালক নিজেকেই প্রশ্ন করেছেন সত্তরের নকশাল আন্দোলন কি সত্যিই তার রাজনৈতিক মতাদর্শের পথটি গ্রহণ করেছিল নাকি গলদ ছিল নেতৃত্বের দেখানো পথেই। ফলে নতুন কিছুর প্রশ্নের উত্থাপন ও হয়। আর ‘ট্রায়ো’ বইটির বৈশিষ্ট্য এখানেই। নির্মেদ, নির্নীত বিশ্লেষণ এবং বিষয়বস্তুর অসাধারণ পর্যবেক্ষণ সব মিলিয়ে সিনেমা দেখার রীতি বা প্রকরণরই পরিবর্তন করে ফেলেছেন লেখক তার এই সদ্য প্রকাশিত বইটিতে।এছাড়া শিল্পী দেবাশীষ সাহার অসাধারণ প্রচ্ছদ অন্য মাত্রা দিয়েছে, সর্বোপরি সিনেমা সংক্রান্ত প্রবন্ধ ও শব্দচয়নের ক্ষেত্রে লেখক নিঃসন্দেহে স্বতন্ত্র। 

 
ট্রায়ো। সৌমিক কান্তি ঘোষ । রূপালী। ১৭০ টাকা।

  •  
  •  
  •  
  •  

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Related post