• December 4, 2021

আপনি এখন ও কোথাও পড়ান ? ভেবেই ভয় করছে

 আপনি এখন ও কোথাও পড়ান ? ভেবেই ভয় করছে

সাম্য

শিক্ষক দিবস আসলে অনেক কিছু একসঙ্গে লিখতে ইচ্ছে করে , লিখতে বসলেই যেটা হয় গিজগিজে ভাবনা গুলো আরো বেশি করে মাথা খেয়ে নেয় তাই গুছিয়ে লিখে উঠতে পারি না । তবে আজ শিক্ষক দিবস পেরিয়ে যাওয়ার দু দিন পরে , কোলকাতা থেকে এত দূরে রাত্রি বেলা বসে ,আমার এক শিক্ষক আর তার দেওয়া শিক্ষার কথা না বলে পারছি না ।
আমি পড়তাম যোধপুর পার্ক বয়েজ স্কুলে , সামাজিক ভাবে আমার যৌন প্রবনতা আলাদা হওয়ার কারণে একটি বয়েজ স্কুলে যেসব সমস্যার মুখোমুখি হতে হতো তার সবটাই হতে হয়েছে এবং অবশ্যই তার মধ্যে যৌন নির্যাতন একটা বিরাট বড় রোল প্লে করতো । দিনের পর দিন স্কুলে ভারবাল আবিউস বিষয় টা খানিক অভ্যেসে দাঁড়িয়ে গিয়েছিলো , আসলে এটা অভ্যেস করে নেওয়া ছাড়া আর কোনো উপায় ছিলো না । একজন শিক্ষিকাকে (Sarbaani Roy) একদিন এই বিষয়ে বলতে যাওয়ায় উনি বলেন দোষ টা তোমার ই তুমি নিজেকে বদলাও । তাই ধরে নিয়েছিলাম ওই দরজা বন্ধ ওই দিকটা নিয়ে আর ভাবিনি ।
কিন্তু যখন এই নির্যাতনটা একটা দৈনন্দিন শারীরিক নির্যাতনে পৌঁছে যায় তখন সিদ্ধান্ত নি এবার কাউকে জানাতে হবে ।
আমি একটি চিরকুটে লিখেছিলাম , ” প্রতিদিন প্রীতম আমাকে জোর করে ক্লাসে চুমু খায় , এই বিষয়টি আমার সহ্যের সীমা ছাড়িয়ে যাচ্ছে ” ।
চিরকুট টি জমা দিয়েছিলাম “চন্দন সুরভি দাস” নামক এক শিক্ষকের কাছে , উনি আমাদের ভূগোল পড়াতেন । দুর্দান্ত পড়ানোর পাশাপাশি যে কোনো অন্যায়ের উপযুক্ত বিচার করতেন এবং শাস্তি দিতেন । এই ক্ষেত্রেও তার অন্যথা হলো না ।

দুদিন পর উনি ক্লাসে এলেন আমার নাম ধরে ডাকলেন ,আমি গেলাম মৃদু হাসি এবং মৃদু চিন্তা নিয়ে এবং তারপরেই কিছু বোঝার আগেই উনি আমাকে বেধড়ক মারতে শুরু করলেন আপাদমস্তক , এর পর থেকে ওনার ক্লাস থাকলেই ওই ভারবাল অবিউসের মতোন এই ফিজিক্যাল আবিউস টা আমার অভ্যেস হয়ে গিয়েছিলো । আমি কোনো কিছু বলার সুযোগ পাইনি , বুঝে উঠতে পারিনি যে আমার অপরাধ টা কি ?
এরকম ই ওনার ক্লাস চলাকালীন মার খাওয়া কালীন , প্রীতম ক্লাসে উঠে স্যারকে বলে ,
” স্যার আমাকে জোর করে চুমু খেয়ে ও আপনাকে মিথ্যে চিরকুট দিয়েছে সেটার আরো বড় প্রমান ওর অঙ্ক বই , দেখুন প্রতিটা পাতায় একটা ছেলের নাম লেখা ” । ও ভুল বলেনি সত্যিই প্রতিটি পাতায় আমার তৎকালীন প্রেমিকের নাম আমি লিখে রেখেছিলাম ।

চন্দন স্যার তার উত্তরে যা করেছিলেন ,
১. উনি আমাকে গোটা ক্লাসের সামনে দাঁড় করিয়ে গোটা ক্লাসকে জিজ্ঞেস করেন , ” তোমরা কেউ কি এই ছেলেটির বন্ধু ? বা বন্ধু হতে চাও ? “
গোটা ক্লাসের উত্তর : না
( এই সব কটা না এর মধ্যে আমার এই মুহূর্তে বন্ধুত্বের দাবী আদায় করতে থাকা প্রিয় বন্ধুটিও আছে যার যৌন প্রবনতা আমার থেকে আলাদা নয় ।
এই সব কটা না এর মধ্যে সেই সময় আমাকে কামনা করতে থাকা কিছু পারভার্ট ও আছে )

২. ” এই ছেলে নষ্ট হয়ে গেছে , একদম পচে গেছে “
৩. ” এর বাবা মা কে খবর দাও , একে আর বাঁচিয়ে রেখে লাভ নেই । “

সত্যি বলছি স্যার আপনাকে ধন্যবাদ জানানোর ভাষা নেই । কি ভাগ্যিস আপনি সেদিন আমাকে সঠিক শিক্ষাটা দিয়েছিলেন , কি ভাগ্যিস আপনার প্রতিটা মারের দাগ আমার স্পষ্ট মনে আছে । কি ভাগ্যিস ক্লাস সেভেনে পড়া একটা ছেলে নিজেকে আবিষ্কার করার ঠিক আগের মুহূর্তেই তাকে , তার আবিষ্কারকে , তার আবিষ্কারের রাস্তাকে , তার ঠিক ভুল বিচার করার ক্ষমতাকে গলা টিপে মারতে চেয়েছিলেন । সেই জন্যই বোধহয় আজ ছেলেটা নিজের পরিচয় নিয়ে এতটা স্পষ্ট , এতটা সঠিক । আপনার সেই প্রতিদিনের এক একটা আঘাত এক একটা অপমান তাকে শিখিয়ে দিয়েছে আত্মপরিচয় কাকে বলে , সহনশীলতা কাকে বলে , অপেক্ষা কাকে বলে , প্রেম কাকে বলে , প্রেমের উদযাপন কাকে বলে সর্বোপরি স্বাধীনতা কাকে বলে । তার মধ্যে কিছু মানুষ যাঁরা আমাকে আদরে বাঁদর করে মাথায় তুলে রেখেছিলেন যেমন প্রিয়তোষ বাবু , সাগর বাবু , অমিত বাবু , আশিষ বাবু এবং আরো অনেকে , কেউ কেউ এনাদের মধ্যে খুব শান্ত ভাবে মাথায় হাত রেখে আমার নাচের বিষয় উৎসাহ দিয়ে গেছেন , কেউ ” আর একটি প্রেমের গল্প ” ছবিটি কেমন হয়েছে তা নিয়ে আলোচনা করেছেন , কাউকে আমি আমার সেই মুহূর্তের সব চেয়ে গোপন ভালো লাগার কথা টি বলে আরাম পেয়েছি ।

কিন্তু স্বাধীনতার অর্থ আমাকে বুঝিয়ে দিয়েছিলেন চন্দন বাবু একমাত্র । তাই আমার স্বাধীনতার শুরু ২০০৭ সালের কোনো একটি মাসে । ২০১৮ র ৬ ই সেপ্টেম্বর শুধু মাত্র আমাকে সম্মান জানিয়েছে ওই আইনের মাধ্যমে । সেই সম্মানের আজ এক বছর পূর্ণ হলো । চন্দন বাবু নিশ্চয় আজ আমার জন্য খুব আনন্দ পাচ্ছেন আমি জানি , শুধু চন্দন বাবু কেন ? সেদিন এর গোটা ক্লাস , আমার প্রিয় বন্ধু , আমাকে একটি মেয়ের রিপ্লেসমেন্ট ভেবে আমাকে ছিঁড়ে খেতে চাওয়া আমার বেশ কিছু সহপাঠী , তারা প্রত্যেকে আমার জন্য আনন্দিত । এদের প্রত্যেক কে শিক্ষক দিবসের শুভেচ্ছা ও ভালোবাসা ।

সাম্য ,জেন্ডার এক্টিভিস্ট , থিয়েটার ওয়ার্কার , কুইয়ার এক্টিভিস্ট

  •  
  •  
  •  
  •  

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Related post