• December 4, 2022

ডেটলাইন পশ্চিমবঙ্গ- মানবাধিকার কর্মীরা আবার আক্রান্ত

 ডেটলাইন পশ্চিমবঙ্গ- মানবাধিকার কর্মীরা আবার আক্রান্ত

জয়গোপাল দে

সারা দেশ জুড়ে দলিত ও মুসলিম জনগনের উপর পুলিশী নিপীড়ন এবং মানবাধিকার সংগঠন NCHRO ও পপুলার ফ্রন্ট সহ বিভিন্ন গন সংগঠনকে নিষিদ্ধ করার বিরুদ্ধে (২৯/৯/২২) মৌলালীতে APDR এর উদ্যোগে একটি যৌথ প্রতিবাদ সভা ছিল প্রশাসনকে জানানোও হয়েছিল।তা সত্ত্বেও এই প্রতিবাদ সভা শুরু হওয়ার আগেই সভায় যোগ দিতে আসা চারজন মহিলা সহ ২২ জন কে গ্রেফতার করা হয়েছে।প্রথমে আমি ঠিক দুপুর দুুটো পঞ্চাশ যখন মৌলালী মোড়ে উপস্থিত হই তখন অন্যরা কেউ এসে উপস্থিত হয়নি হঠাৎই একজন সাদাপোষাকের পুলিশ আমাকে জানায় আপনাকে গ্রেপ্তার করা হবে,আমি বুুঝে ওঠার আগেই চারিধার থেকে বেশকিছু পুলিশ এবং কয়েকজন অফিসার আমাকে ঘিরে ধরল এবং জিজ্ঞাসা করল আপনি এপিডিআর এর সভায় এসছেন?আমি বললাম হ্যাঁ ,এরপর জিজ্ঞাসা করল রাঙতা মুন্সি কোথায় ? আমি বললাম উনি আসছেন, ভ্যানটি দেখিয়ে বললেন ওই গাড়িতে উঠুন আপনাকে গ্রেপ্তার করা হল আমি বললাম আমরাতো ইনটিমেশন দিয়েছি তবুও কেন সভা শুরুর আগেই আমাকে গ্রেপ্তার করছেন,উনারা বললেন আমরা এখানে Unlowfull Assemble হতে দেবনা, চলুন। এই বলেই আমাকে জোর করে ভ্যানের ভিতর তুলে দিলেন,তারপরেই দেখি আমাদের বীজপুর শাখা সম্পাদক আভা রায় ও সদস্য মনোজ শীল এবং কল্যাণী শাখার সদস্য গৌরাঙ্গ মন্ডলকে ভ্যানের ভিতর তুলল ,কিছুক্ষণের মধ্যেই স্বপনা দিকে প্রায় একই কায়দায় তুলে পুলিশ ভ্যান ছুটতে শুরু করল আমরা জিজ্ঞাস করলাম আমাদের কোথায় নিয়ে যাচ্ছেন ওই ভ্যানে যে সমস্ত পুলিশ ছিল তাঁরা কেউ আমাদের জানালো না,আমরা শ্লোগান দিতে দিতে চললাম কিছুক্ষণ পরে আমরা দেখলাম আমাদেে চেনা রাস্তা লালবাজারের দিকে ভ্যানের গতিমুখ, আমরা শ্লোগান দিতে দিতে লালবাজার পৌছালাম।

তারপর আমাদের লালবাজারে একটা সেলের ভিতর ঢুকিয়ে দিল, এইভাবেই এক এক করে যারা সেখানে সভায় উপস্থিত হয়েছেন তাদের গ্রেপ্তার করেছেন এবং পুলিশ তারা করে হঠিয়ে দিয়ে সভা বানচাল করে দিয়েছে। এছাড়াও রাজাবাজার এলাকায় একই বিষয়ের উপর এপিডিআর এর আরেকটি সভা হওয়ার কথা ছিল, পুলিশ, সেই সভাও বানচাল করার জন্য ঐসভার ও চারজনকে গ্রেপ্তার করে এবং কয়েক ঘন্টা আটকে রেখে ছেড়ে দেওয়া হয়।গনতান্ত্রিক ব্যবস্থায় সভা বানচাল করে পুলিশিরাজ কায়েম করেছে। সভা স্থল বিধিনিষেধের কোনো কথা বা সতর্কতা আমাদের আগে থেকে জানানো হয় নি। লালবাজার লক্ আপে প্রায় পাঁচ ঘন্টা রাখার পর রাত সাড়ে আটটার সময় গ্রেপ্তার হওয়া কর্মী- সমর্থকদের 151/CRPC কেস দিয়ে জামিনে ছাড়া হয়েছে।আমরা যে দাবি নিয়ে আজ সভা করবার পরিকল্পনা করেছিলাম ছাড়া পাবার পর জোরের সাথেই আমরা লালবাজার সংলগ্ন এলাকায় উচ্চ স্বরে শ্লোগান দিতে দিতেই বেরিয়ে আসি এবং ঐ এলাকার বাসিন্দাদের জানান দিই।আমরা প্রশাসনের এবং সরকারের এই আচরণের তীব্র নিন্দা করছি এবং ধিক্কার জানাচ্ছি।

ছবি : সৌজন্যে সন্দীপ সাহা

জয়গোপাল দে : মানবাধিকার কর্মী।

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Related post