• December 4, 2021

করোনাকালে পরিবার-পরিজনদের নিয়ে দারিদ্রতার সাথে গুজরান

 করোনাকালে পরিবার-পরিজনদের নিয়ে দারিদ্রতার সাথে গুজরান

নিজস্ব সংবাদদাতা উত্তর দিনাজপুর :- করোনাকালে পরিবার-পরিজনদের নিয়ে দারিদ্রতার সাথে গুজরান করছেন উত্তর দিনাজপুর জেলার কয়েক হাজার বাউল,তৎপর ভাওয়াইয়া, খন সহ সমস্ত লোক সঙ্গীত শিল্পীরা। প্রায় দুই বছর ধরে সরকারি ও বেসরকারি সমস্ত অনুষ্ঠান বন্ধ হয়ে যাওয়ায় অনাহারে-অর্ধাহারে দিন কাটছে তাদের। অনেকেই বেছে নিয়েছেন আত্মহত্যার পথও। রাজ্য সরকারের মাসিক এক হাজার টাকা কিছু শিল্পী ভাতা হিসাবে পেলেও তা দিয়ে সংসার চলে না। শিল্পীদের দাবি রাজ্য সরকার তাদের ভাতা একটু বৃদ্ধি করে দিয়ে তাদের বাঁচার পথ করে দিক।
উত্তর দিনাজপুর জেলায় প্রায় চোদ্দ হাজার লোকো শিল্পী প্রায় কর্মহীন হয়ে পড়েছেন।

সরকারি ও বেসরকারি নানান অনুষ্ঠানে তাদের গান-বাজনা ও সংগীত পরিবেশন করে যে রোজগার হতো তাতেই চলত তাদের পরিবার প্রতিপালন। রায়গঞ্জ তথা উত্তরবঙ্গের প্রথিতযশা বাউল শিল্পী তরণী সেন মহন্ত জানিয়েছেন ইদানিং বহু শিল্পী না খেতে পেয়ে মারা গিয়েছেন। আবার কেউ উপার্জনহীন হয়ে সংসার প্রতিপালন না করতে পারায় আত্মহত্যার পথ বেছে নিয়েছেন। 2014 সাল থেকে রাজ্য সরকার বেশকিছু শিল্পীদের মাসিক এক হাজার টাকা শিল্পী ভাতা প্রদান করলেও নিজেদের জীবিকা বন্ধ হয়ে যাওয়ায় সরকারের দেওয়া 1000 টাকায় পরিবার প্রতিপালন কি করে সম্ভব। প্রশ্ন থেকেই যায়। তাই উত্তর দিনাজপুর জেলায় হাজার হাজার শিল্পীদের দাবি রাজ্য সরকার এই সংকটময় মুহূর্তে তাদের শিল্পী ভাতার পরিমাণ বাড়িয়ে দিয়ে বাসার রসদ যোগাক।
এদিকে উত্তর দিনাজপুর জেলার তথ্য সংস্কৃতি আধিকারিক রানা দেবদাস জানান লোকসংগীত শিল্পীদের এই অবস্থার কথা উর্দ্ধতন কর্তৃপক্ষের কাছে জানানো হবে।

  •  
  •  
  •  
  •  

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Related post