• May 29, 2022

স্লোগান ছিলো নো ভোট টু বিজেপি,এরপর কি?

 স্লোগান ছিলো নো ভোট টু বিজেপি,এরপর কি?

স্লোগান ছিলো নো ভোট টু বিজেপি,এরপর কি?

পূর্বাঞ্চল নিউজ ডেস্কঃ একুশের বিধানসভা নির্বাচনে তাদের স্লোগান ছিলো NO VOTE TO BJP, বিজেপিকে একটিও ভোট নয়।একুশের নির্বাচনকে কে কেন্দ্র করে ফ্যাসিস্ট আর এস এস বিজেপির বিরুদ্ধে বাংলা নামে মঞ্চ ‘নো ভোট টু বিজেপি’ স্লোগান তোলে।বাংলার মানুষ এই সংগঠনের নামটা কতটা মনে রেখেছে তা বলা মুস্কিল, তবে বাংলার প্রতিটি শহরের মোড়ে,গ্রামে-গঞ্জে তাদের পোস্টার দেখা গেছে।বাংলায় মাঠ-ঘাট-প্রান্তরে ট্যাবলো নিয়ে সভা করতে দেখা গেছে।এই স্লোগানকে সমর্থন করে যোগ দিয়েছিলেন দিল্লি কৃষক আন্দোলনের নেতারাও।একটা স্লোগানে গোটা দেশ তোলপাড়, গোটা দেশে ট্রেন্ডিং হয়েছিলো এই স্লোগান।মানুষের মুখে মুখে চর্চাও হয়েছে।অনেক রাজনৈতিক বিশ্লেষকদের মতে নো ভোট টু বিজেপি স্লোগান অনেকটাই বিধানসভা নির্বাচনে প্রভাব ফেলেছে।অনেকের মতে এই স্লোগান অনেক ভোট সুইং করে বিজেপিকে পরাস্ত করেছে।বিজেপি পরাস্ত করার পর এখন ফ্যাসিস্ট বিজেপি আর এস এস বিজেপির বিরুদ্ধে বাংলা থেমে থাকতে চাইনা।তারা তাদের সংগঠনের কাজ আরও এগিয়ে নিয়ে যেতে চায়।ফলে এই সংগঠন আবার জেলায় জেলায় তাদের আহবায়ক কমিটির সাথে দফায় দফায় বসে নতুন কর্মসূচি গ্রহণের জন্য মতামত সংগ্রহ করছে।ইতি মধ্যে তাদের হুগলি,বীরভূমের জেলায় মিটিং শেষ হয়েছে।শনিবার মুর্শিদাবাদের আহবায়ক কমিটির মিটিং ছিলো।উপস্থিত ছিলেন সংগঠনের ফ্যাসিস্ট আর এস এস বিজেপির বিরুদ্ধে বাংলা মঞ্চের সেন্ট্রাল কমিটির সদস্য কুশল দেবনাথ, সামিম আহমেদ,অনিবার্ণ ব্যানার্জি সহ মুর্শিদাবাদ জেলার আহবায়ক কমিটির সদস্য আশীষ পাত্র,তাইদুল ইসলাম,মীর রাকেশ রৌশান, শামসুল হক কান্তা,শামসুল হালসোনা,সোনা সেখ সহ অন্যান্য সদস্যরা।জেলায় জেলায় তাদের সভা শেষে সেন্ট্রাল কমিটি আগামী দিনের কর্মসূচি গ্রহণ করবেন।

  •  
  •  
  •  
  •  

2 Comments

  • নিয়মিত পড়ছি ।ভালো লাগছে পড়তে । বেশীরভাগ রচনার মানও প্রশংসার দাবী রাখে । লেখা দিতে চাইলে সেটা কি লেখা কি ই মেলে পাঠাতে হবে ?

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Related post